চিয়া সীড (Chia seed) কি?

চিয়া সিড বা চিয়া বীজ মরুভূমিতে জন্মানো সালভিয়া হিসপানিকা (Salvia Hispanica) উদ্ভিদের বীজ। এই অতি উপকারি বীজটির আদি জন্মস্থান সেন্ট্রাল আমেরিকা এবং সেখানকার প্রাচীন আদিবাসি অ্যাজটেক জাতির খাদ্য তালিকায় এই বীজ অন্তর্ভুক্ত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়। প্রাচীন মায়া এবং অ্যাজটেক জাতির মানুষ চিয়া সিডকে সোনার থেকেও মূল্যবাণ মনে করত। তারা বিশ্বাস করত এটা তাদের শক্তি ও সাহস জোগাবে।

চিয়া সীড সব ধরণের আবহাওয়ায় হয় এবং এতে পোকামাকড়ের আক্রমণ তেমন হয় না। চিয়া বীজ সাদা ও কালো রং এর এবং তিলের মত ছোট সাইজের হয়। এখানে উল্লেখ্য যে চিয়া সীড এবং তোকমা নিয়ে একটি ভুল ধারণা আছে। অনেকেই তোকমাকে ভুল করে চিয়া সীড মনে করেন। চিয়া সীড তোকমার চেয়ে সাইজে ছোট,  তোকমার ইংরেজি নাম ব্যাসিল সীড (Basil seed)।

 

চিয়া সীডের পুষ্টিগুণ

  • দুধের চেয়ে ৫ গুণ বেশী ক্যালসিয়াম
  • কমলার চেয়ে ৭ গুণ বেশি ভিটামিন সি
  • পালং শাকের চেয়ে ৩ গুণ বেশী আয়রন (লোহা)
  • কলার চেয়ে দ্বিগুণ পটাশিয়াম
  • স্যামন মাছের থেকে ৮ গুণ বেশী ওমেগা-৩

এক আউন্স (২৮ গ্রাম) চিয়া সিডে আছে;
ফাইবার- ১১ গ্রাম
প্রোটিন- ৪ গ্রাম
ফ্যাট- ৯ গ্রাম (যার ৫ গ্রাম আবার Omega-3s)
ক্যালসিয়াম- RDA (Recommended Dietary Allowance) এর ১৮%
ম্যাঙ্গানিজ- RDA এর ৩০%
ম্যাগনেসিয়াম- RDA এর ৩০%
ফসফরাস- RDA এর ২৭%
সমুচিত পরিমাণে জিঙ্ক, ভিটামিন বি৩ (নায়াসিন), পটাশিয়াম, ভিটামিন বি১ (থায়ামিন) ও ভিটামিন বি২

এনার্জি – ১৩৭ ক্যালোরি,

কার্বোহাইড্রেড – ৩ গ্রাম

জিঙ্ক – ১ মিলিগ্রাম

তামা – ১ মিলিগ্রাম,

পটাশিয়াম – ৮ মিলিগ্রাম,

 

চিয়া সীডের ১৫টি উপকারিতা

১। এটা শক্তি এবং কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে

২। চিয়া সীড রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে আরও শক্তিশালী করে

৩। চিয়া বীজ ওজন কমাতে সহায়তা করে

৪। চিয়া সিড ব্লাড সুগার (রক্তের চিনি) স্বাভাবিক রাখে, ফলে ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি কমায়

৫। চিয়া বীজ হাড়ের স্বাস্থ্য রক্ষায় বিশেষ উপকারি

৬। চিয়া সিড মলাশয় (colon) পরিষ্কার রাখে ফলে কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়

৭। চিয়া সিড শরীর থেকে টক্সিন (বিষাক্ত পদার্থ) বের করে দেয়

৮। চিয়া সীড প্রদাহজনিত সমস্যা দূর করে

৯। চিয়া সীড ভাল ঘুম হতে সাহায্য করে

১০। চিয়া বীজ ক্যান্সার রোধ করে

১১। চিয়া সিড হজমে সহায়তা করে

১২। চিয়া বীজ হাঁটু ও জয়েন্টের ব্যথা দূর করে

১৩। চিয়া সীড এটেনশান ডেফিসিট হাইপার এক্টিভিটি ডিসর্ডার (Attention deficit hyperactivity disorder ADHD) দূর করে

১৪। চিয়া সিড ত্বক, চুল ও নখ সুন্দর রাখে

১৫। চিয়া সীড গৃহপালিত পশুর খাদ্য হিসেবেও ব্যবহৃত হয়

 

খাবারের নিয়মঃ

দ্রুত ওজন কমাতে খালি পেটে সকালে এবং রাতে ঘুমানোর আগে ১গ্লাস পানির মধ্যে ২ চা চামচ চিয়া সিড ও ২ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে খেলে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।খাওয়ার ৩০মিনিট আগে নরমাল পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।

 

চিয়া সীডের মূল্য কত এবং কোথায় পাাবেন?

 

মূল্য :  ৯৫০ টাকা কেজি।

 

নওগাঁ সদরে ফ্রি হোম ডেলিভারী দেওয়া হয়: সহায়ক মুুঠোফোন: ০১৮৫৮-৪৫৪৬০৩

 

দেশের অন্যান্য জেলাতে কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো হয়। কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানোর নিয়ম:

 

১ম ধাপ:

চিয়াসিডের ৫০% মূল্য  মোবাইল ব্যাংকিং “রকেট/ রকেট এর বিল পে সিস্টেম ২৪১ বিলার আইডিতে/বিকাশ” এর মাধ্যমে পরিশোধ করতে  হবে।

 

পরিশোধের নিয়ম:১।   বিল পে সিস্টেম: *322# লিখে যে সিমে রকেট একাউন্ট আছে সেই সিম থেকে ডায়াল করুন। এবার ১ লিখেSend করুন। আবার ১ লিখে Send করুন। এবার ০ লিখে Send করুন।  Enter Biller ID এর ঘরে 241 লিখে Send করুন। এবার Enter Bill Number এর ঘরে 2 এবং আপনার মোবাইল নং লিখে Send করুন (যেমন-২০১৭৭৯২৯৩৫৩৭)। এবার Enter Amount এর  ঘরে 900/450 লিখে Send করুন। এবার আপনার রকেট একাউন্টের পিন নং লিখে Send করুন 

   রকেট (পারসোনাল): ০১৬১৮-৩৫২৩০১১

৩.  বিকাশ (পারসোনাল): ০১৭৭৯-২৯৩৬৩৭

 

২য় ধাপ: কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে আপনার এলাকায় চিয়াসিড পৌঁছানোর পর  অবশিষ্ট টাকা প্রদান করে 

               আপনাকে চিয়াাসিড সংগ্রহ করতে হবে।

 

আমাদের অন্যন্য পণ্য:  বরই ফুলের মধু ও  ড্রাই  মিক্সফুড

 

চিয়া সীড কি? কেন খাবেন , দাম কত এবং কোথায় পাওয়া যায় - QR Code Friendly
Powered by QR Code Friendly